নবীজী সাঃ এর কাছের তিন জন বিশিষ্ট সাহাবীর জীবনী

         

তিন জন সাহাবীর জীবনী । হযরত আনাস ইবনে মালেক রাঃ,হযর ওবাদা ইবনে সামিত রাঃ ও হযরত আবু সাঈদ খুদুরী রাঃ এর জন্ম,ওফাত,কর্ম জীবন,হাদিস বর্নার সংখ্যা সহ সম্পূর্ণ জীবনী।

হযরত আনাস ইবনে মালেক রাঃ

নাম ও পরিচয়ঃ

তার নাম আর আনাস, উপনাম আবূ হামজা, পিতার নাম মালেক ইবনে নদর আর মাতার নাম উম্মে সুলাইম বিনতে মিলহান।

জন্মঃ

তিনি হিজরতের ১০ বছর পূর্বে জন্মগ্রহণ করেন। রাসূল যখন হিজরত করে মদীনায় আগমন করেন, তখন তার বয়স ছিল মাত্র দশ বছর।

রাসূল এর খেদমতঃ

হযরত আনাস রাঃ একজন প্রসিদ্ধ সাহাবী এবং রাসুলের খাদেম ছিলেন। দশ বছরের বালক অবস্থায় উম্মে সুলাইম হযরত আনাস রাঃ কে রাসুল এর খেদমতে রেখে যান। তিনি অত্যন্ত ধৈর্যের পরিচয় দিয়ে একটানা দশ বছর রাসুল এর খেদমতে অতিবাহিত করেন । তার বর্ণনা মতে রাসূল কোনদিন তাকে কোন কাজের আদেশ দেননি।রাসূল তার জন্য দোয়া করেন اللهم اكثر ماله وولده وبارك له فيما اعطيته ।তার সন্তানের সংখ্যা ছিল ১০০ জন কারো মতে ৮০ জন।

যুদ্ধে অংশগ্রহণঃ

হযরত আনাস রাঃ বয়সে ছোট ছিলেন বিধায় বদর ও উহুদ যুদ্ধে অংশগ্রহণ করতে পারেননি। তবে পরবর্তী সকল যুদ্দে তিনি সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেছেন।


সরকারী দায়িত্ব পালনঃ

হযরত আবু বকর রাঃএর খেলাফতকালে তাকে বাহারাইনের আমির ও গভর্নর নিযুক্ত করা হয় । হযরত ওমর রাঃ এর খেলাফতকালে বসরা নগরীতে ফিকহের মুয়াল্লিম হিসেবে হযরত আনাস রাঃ কে নিয়োগ করা হয়।

গুণাবলীঃ

সাহাবীগণের মধ্যে তিনি জ্ঞানীগুণী একজন সাহাবী ছিলেন। তিনি ছিলেন সাহাবীদের মধ্যে যিনি সর্বশেষ যিনি ইন্তিকাল করেন তিনি হলেন হযরত আনাস ইবনে মালেক রাঃ।

হাদিস বর্ণানাঃ

তিনি অধিক হাদিস বর্ণনাকারী গণের একজন। রাসূল থেকে তিনি সর্বমোট ২২৮৬ টি হাদিস বর্ণনা করেন। তারমধ্যে হযরত ইমাম বুখারী ও মুসলিম রাঃ সম্মিলিতভাবে ভাবে ১৬৮ টি হাদিস বুখারী ও মুসলিমে লিপিবদ্ধ করেন। তারমধ্যে ইমাম বুখারী রাঃ এককভাবে ৮৩ টি হাদিস ও ইমাম মুসলিম রাঃ এককভাবে ৯১ টি হাদিস নিজ নিজ গ্রন্থে উল্লেখ করেন।

সন্তানের সংখ্যাঃ

তার সন্তানের সংখ্যা ছিল ১০০ জন। অপর বর্ণনায় আছে ৮০ জন।তন্মধ্যে ৭৮ জন পুরুষ ও দুজন মহিলা। প্রসিদ্ধ ও নির্ভরযোগ্য বর্ণনাকারীর মতে তার সন্তানের সংখ্যা ১২০ জনেরও বেশি ছিল।

ইন্তেকালঃ

হযরত আনাস রাঃ ১০৩ বছর বয়সে হাজ্জাজের শাসনামলে ৯৩ হিজরীতে ইন্তেকাল করেন । বসরাতেই তাকে দাফন করা হয়।


হযরত ওবাদা ইবনে সামিত রাঃ

নাম ও পরিচয়ঃ

তার নাম ওবাদা,উপনাম আবূল ওয়ালিদ, পিতার নাম সামিত, মাতার নাম কুররাতুলআইন বিনতে ওবায়দা। তিনি মদীনার খাজরাজ গোত্রের সালেম শাখা বংশে জন্মগ্রহণ করেন। মদিনার অদুরেই তার বাড়ি ছিল।

ইসলাম গ্রহণঃ

তিনি প্রথম আকাবায় ইসলাম গ্রহণ করেন। দ্বিতীয় আকাবায় উপস্থিত ছিলেন। রাসূল তৃতীয় আকাবায় তাকে কাওয়াফেল গোত্রের নকীব নিযুক্ত করেন।

যুদ্ধে অংশগ্রহণঃ

তিনি ইসলামের প্রথম যুদ্ধ ঐতিহাসিক বদর সহ প্রায় সকল যুদ্ধে রাসুলে এর সাথে অংশগ্রহণ করেন । হযরত আবু বকর সিদ্দিক রাঃ এর শাসনামলে তিনি সিরিয়ার অভিযানে অংশগ্রহণ করেন । হুদায়বিয়ার প্রান্তরে বাইয়াতে রিদওয়ানেও তিনি অংশগ্রহণ করেন । হযরত ওমর রাঃ এর আমলে মিশর বিজয়েও তাহার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল।

সরকারী দায়িত্ব পালনঃ

হযরত ওমর রাঃ এর শাসনামলে তিনি সিরিয়ার বিচারপতি ও প্রশিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। অতঃপর হযরত ওমর রাঃ তাকে ফিলিস্তিনের প্রধান বিচারপতি নিয়োগ করেন । আওযায়ী বলেন, তিনি ফিলিস্তিনের প্রথম বিচারপতি ছিলেন। পরবর্তীতে তাকে গভর্নর হিসেবেও নিযুক্ত করা হয়।

দৈহিক গঠনঃ

শারীরিক দিক থেকে তিনি যথেষ্ট দীর্ঘ ও আকর্ষণীয় চেহারার অধিকারী ছিলেন । তার মনোবল ছিল অতি সুদৃঢ় এবং কণ্ঠস্বর ছিল অত্যন্ত স্পষ্ট।

হাদিস বর্ণনাঃ

তিনি রাসূল হতে সর্বমোট ১৮১ টি হাদীস বর্ণনা করেছেন। তার নিকট হতে একদল সাহাবী ও অনেক তাবেয়ী হাদীস বর্ণনা করেছেন।

ইন্তেকালঃ

তিনি হিজরীর ৩৪ সালে ৭২ বছর বয়সে ফিলিস্তিনের রামাল্লা শহরে ইন্তেকাল করেন। হযরত মুয়াজ ইবনে জাবাল রাঃ তার জানাযার ইমামতি করেন । বায়তুল মাকদাসে তাকে দাফন করা হয়।

হযরত আবু সাঈদ খুদুরী রাঃ

নাম ও পরিচয়ঃ

তার নাম চাদ ,উপনাম আবূ সাঈদ, এ নামেই তিনি প্রসিদ্ধি লাভ করেছেন । পিতার নাম মালেক ইবনে সিনান । তিনি একজন সাহাবী ছিলেন।

জন্মঃ

হিজরতের ১০ বছর পূর্বে হযরত আবু সাঈদ খুদরী রাদিয়াল্লাহু জন্মগ্রহণ করেন।

ইসলাম গ্রহণঃ

পিতা মাতা উভয়ই ইসলাম গ্রহণ করায় তিনি বাল্যকাল হইতেই ইসলাম গ্রহণ করে ইসলামী পরিবেশের লালিত পালিত হন।

যুদ্ধে অংশগ্রহণঃ

উহুদ যুদ্দের সময় তিনি অত্যন্ত ছোট ছিলেন বলে তাকে এ যুদ্ধে অংশগ্রহণের অনুমতি দেওয়া হয়নি। তবে এরপর থেকে তিনি রাসূল এর সাথে সর্ব মোট বারোটি যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছেন।

হাদিস বর্ণনাঃ

সর্বাধিক হাদিস বর্ণনাকারীগণের মধ্যে তিনিও একজন। রাসূল থেকে তিনি সর্বমোট ১১৭০ টি হাদিস বর্ণনা করেন। ৪৬ টি মুত্তাফাকুন আলাইহি। বুখারীতে এককভাবে ১৬ টি এবং মুসলিমে ৫২ টি হাদিস উল্লেখ রয়েছে।

গুণাবলীঃ

তিনি একাধারে একজন হাফেজ, বিজ্ঞ আলেমেদ্বী্‌ ইসলামী চিন্তাবিদ ও শরীয়ত বিশেষজ্ঞ ছিলেন।

ইন্তেকালঃ

তিনি হিজরী ৭৪ সালে ৮৪ বছর বয়সে শুক্রবার পবিত্র মদিনায় ইন্তেকাল করেন। জান্নাতুল বাকীতে তাকে সমাহিত করা হয়।

এই সাহাবীর জীবনী সম্পর্কে জানা আমাদের সকলের ইমানই দায়িত্ব।

You Might Also Like